December 31, 2019

রুকইয়াহ শারইয়্যাহ ইনডেক্স

সর্বশেষ আপডেট: ২৪ জানুয়ারি, ২০১৯ 📛
 
[লক্ষণীয়ঃ কোনো লেখা ফেসবুকের বাহিরে কোথাও প্রকাশ করতে অথবা প্রিন্ট করতে চাইলে অনুমতি নেয়া আবশ্যক। ফেসবুকের মাঝে কপি করলে লেখকের নাম উল্লেখ করুন। একাধিক লেখা একত্র করা অথবা পিডিএফ বানানো থেকে বিরত থাকুন।]
এখানকার প্রায় সব গুরুত্বপূর্ণ লেখা একত্রে পাবেন "রুকইয়াহ" বইটিতে। প্রাপ্তিস্থান: [এখানে দেখুন] সাহায্য এবং পরামর্শের জন্য রুকইয়াহ সাপোর্ট গ্রুপ - Ruqyah Support BD গ্রুপে যোগ দিন।
 

অধ্যায়-১: রুকইয়াহ বিষয়ে..

  1. সারসংক্ষেপ রুকইয়াহ শারইয়্যাহ | [old v]
  2. আয়াতে রুকইয়াহ লিস্ট এবং পিডিএফ
  3. রুকইয়াহ শারইয়্যার গুরুত্ব এবং ফযিলত!
  4. রুকইয়াহ কী? এর শরঈ বিধান কী? | [old v]
  5. রুকইয়া বিষয়ে কয়েকটি গুরুত্বপূর্ণ সতর্কতা | [old v]
  6. রুকইয়াহ শারইয়াহ; প্রাথমিক পরিচিতি

অধ্যায়-২: বদনজর বিষয়ক

  1. পর্ব -১ (বদনজর বিষয়ে ইসলামী আক্বিদা)
  2. পর্ব -২ (সালাফের মুল্যায়ন, নজর লাগার লক্ষণ)
  3. পর্ব -৩ (বদনজর থেকে বাঁচার উপায়, কিছু ঘটনা)
  4. পর্ব -৪ (রুকইয়ার শরঈ বিধান, বদনজরের চিকিৎসা)
  5. কোরবানির গরু এবং বদনজর
  6. বদনজরের সেলফ রুকইয়াহ গাইড

অধ্যায়-৩: জিনের আসর বিষয়ক

  1. পর্ব-১ (জ্বিনের আসর বিষয়ে ইসলামী আক্বিদা)
  2. পর্ব-২ (সালাফে সালেহীনের কিছু ঘটনা)
  3. পর্ব-৩ (আসরের প্রকারভেদ, কখন আক্রান্ত হয়)
  4. পর্ব-৪ (আক্রান্ত হওয়ার লক্ষণ, বাঁচার কিছু টিপস)
  5. পর্ব-৫ (বাড়ি থেকে জ্বিন তাড়ানো, রাক্বী’র গুণাবলী, বই)
  6. পর্ব-৬ (জ্বিন আসরের চিকিৎসা)
  7. পর্ব-৭ (রাক্বির জরুরী জ্ঞাতব্য বিষয়, যাদুর সাধারণ চিকিৎসা)
  8. পর্ব-৮ (কিছু প্রায়োগিক বাস্তব ঘটনা)
  9. রাত্রীতে জ্বিনের সমস্যা...
  10. লাভার জিন বা প্রেমিক জিন সংক্রান্ত সমস্যা

অধ্যায়-৪: কালো যাদু বিষয়ক

  1. পর্ব-১ (যাদু বিষয়ে ইসলামী আক্বিদা)
  2. পর্ব-২ (সালাফের মন্তব্য, কিভাবে যাদু করে, সতর্কতা)
  3. পর্ব-৩ (পূর্ব কথা, রুকইয়ার আয়াত, পিডিএফ)
  4. পর্ব-৪ (বিয়ে ভাঙার বা আটকে রাখার যাদু)
  5. পর্ব-৫ (সম্পর্কে বিচ্ছেদ ঘটানোর যাদু)
  6. পর্ব-৬ (আসক্ত, অনুগত বা বশ করার যাদু)
  7. পর্ব-৭ (শারীরিকভাবে অসুস্থ বানানোর যাদু)
  8. পর্ব-৮ (পাগল করা এবং পড়ালেখা নষ্টের যাদু)
  9. পর্ব-৯ (দুই প্রকার সেক্সুয়াল ডিজিজের জন্য যাদু)
  10. পর্ব-১০ (গর্ভের সন্তান নষ্ট করার যাদু)
  11. পর্ব-১১ (প্রাসঙ্গিক কিছু ঘটনা)
  12. পর্ব-১২ (যাদু এবং অন্যান্য ক্ষয়ক্ষতি থেকে বাঁচার উপায়)
  13. সিহরের কমন রুকইয়াহ
  14. বরই পাতার গোসল

অধ্যায়-৫: ওয়াসওয়াসা রোগ

  1. ওয়াসওয়াসা রোগে আক্রান্ত হওয়ার লক্ষণ
  2. ওয়াসওয়াসা রোগের জন্য রুকইয়াহ
  3. পাপের প্রতি এডিকশন থেকে বাঁচার উপায়
  4. ওয়াসওয়াসা রোগ থেকে মুক্তির উপায় [video]
  5. অনাহূত ভাবনা ও তার প্রতিকার [ext]

অধ্যায়-৬: অন্যান্য অসুস্থতা

  1. শারীরিক এবং মানসিক অসুস্থতার জন্য রুকইয়াহ
  2. বাচ্চাদের বিভিন্ন সমস্যার জন্য রুকইয়াহ গাইড
  3. ব্যাথার জন্য রুকইয়াহ
  4. মনভুলা রোগের জন্য রুকইয়াহ
  5. ঠাণ্ডার (হাঁপানি, এলার্জি বিবিধ) জন্য রুকইয়াহ
  6. অলসতা, ক্লান্তি, দুর্বলতা ইত্যাদির সমাধান
  7. হাড়ক্ষয় রোগের জন্য রুকইয়াহ
  8. চোখের সমস্যার জন্য রুকইয়াহ
  9. তোতলামির সমস্যা এবং করণীয়

অধ্যায়-৭: সাপ্লিমেন্টারী

  1. সুন্নাহসম্মত যত রুকইয়াহ | রুকইয়াহ সাপ্লিমেন্টারী
  2. জেনারেল রুকইয়াহ এবং কার্স স্পেল
  3. কার্স ফর কবিরাজ!
  4. রুকইয়াহ এবং দোয়া
  5. তিন স্তরের রুকইয়াহ
  6. রুকইয়াহ অডিও
  7. রুকইয়ার গোসল
  8. পানিপড়া এবং রুকইয়াহ
  9. বাথ সল্ট এবং গোসল
  10. রুকইয়াহ যিনা!

অধ্যায়-৮: প্রচলিত ভুল ধারণা

  1. রুকইয়াহ এবং রেফারেন্স
  2. রুকইয়াহ করলে কি জান্নাতে যাওয়া যাবে না?
  3. রুকইয়া সংক্রান্ত কিছু হাদিস, সংশয় ও পর্যালোচনা
  4. রুকইয়ার অডিও মানেই রুকইয়া?
  5. রুকইয়া করতে বুজুর্গ হওয়া লাগে?
  6. রুকইয়া শুনলে ঘুম আসছে?
  7. মেয়েরাও কি রুকইয়া করতে পারে?
  8. রুকইয়াহ করলে সমস্যা হচ্ছে?
  9. অমুসলিমদের জন্য রুকইয়া করা যায় না?
  10. কুফরি কাটাতে কুফরি করা লাগবে?
  11. যাদুর জিনিশ ধ্বংস না করে সুস্থ হওয়া যায়না?
  12. ঝাড়ফুঁক জায়েজ তাই তাবিজও জায়েজ?
  13. রুকইয়ার অডিও শোনা কি বিদ’আত?
  14. প্রতিদিনের আমল করলেও কি সমস্যা হতে পারে?
  15. রুকইয়াহ শোনার চেয়ে পড়া উত্তম
  16. সেলিব্রেটিদের নজর লাগেনা কেন?

অধ্যায়-৯: পরিশিষ্ট

  1. আল-আশফিয়া: রুকইয়াহ ডিটক্স প্রোগ্রাম (7 days detox)
  2. সর্বজনীন পূর্ণ রুকইয়াহ প্রোগ্রাম (full ruqyah routine)
  3. রুকইয়ার করার পর সাইড ইফেক্ট সামলানো
  4. জিনদের সাহায্য নেয়া যাবে কি?
  5. ফেরেশতা হাজির করার আমল নাকি শয়তান পুঁজা?
  6. যেসব মুত্তাকী ব্যক্তি বাতিল কবিরাজি করেন...
  7. রুকইয়াহ শিরকিয়্যাহ
  8. বাচ্চাদের রুকইয়ার সময় লক্ষণীয়
  9. সুস্থ হতে আমার এত দেরি লাগছে কেন?
  10. রুকইয়াহ এবং ঔষধ
  11. বিপদের সময় কি দোয়া করবেন?
  12. স্বপ্নে জ্বিন বা যাদুর কিছু দেখলে...

অধ্যায়-১০: উম্মে আব্দুল্লাহর লেখা

  1. রুকইয়া বিষয়ে অভিজ্ঞতার বর্ণনা
  2. রুকইয়াহ বিষয়ে প্রাথমিক ধারণা
  3. রুকইয়াহ নিয়ে যত কথা..
  4. ভয়....
  5. আমাকে কে যাদু করেছে?
  6. রুকইয়ার দ্বারা সমাধান বিষয়ে..
  7. নজর লাগা..
  8. রুকইয়াহ: বিয়ে নিয়ে ইয়ে
  9. পিরিয়ড বিষয়ক সমস্যা
  10. বাচ্চা না হওয়া..
  11. রুকিয়া এবং কিছু অপ্রিয় সত্য
  12. গর্ভকালীন সমস্যা ও রুকইয়াহ
  13. ওয়াসওয়াসাকে জয় করুন...
  14. সমস্যা যখন চুল পড়া!
  15. প্রেম-ভালোবাসা প্রসঙ্গ এবং রুকইয়াহ
  16. সাদাস্রাব সমস্যা প্রসঙ্গে...
  17. বাচ্চাদের শীতকালীন যত্ন এবং রুকইয়াহ

অন্যান্য: অডিও-ভিডিও, অ্যাপ

  1. দি মুসলিম গ্লাস পডকাস্ট (জিন, যাদু, রুকইয়াহ) - ১
  2. অল্প কথায় রুকইয়ার A-Z (lecture)

______
রুকইয়াহ সাপোর্ট বিডি ওয়েবসাইট- http://ruqyahbd.org
ইউটিউব চ্যানেল- http://www.youtube.com/ruqyahbd
Share:

April 30, 2019

কমন রুকইয়াহ সাজেশন

- উম্মে আব্দুল্লাহ
(রুকইয়াহ নিয়ে যত কথা - ৪)
_______________
যারা রুকইয়াহ করছেন বা করতে চাচ্ছেন বা রুকইয়াহ গ্রুপে পোস্ট করেছেন এখনো এপ্রুভ হয়নি। সবার জন্যই পোস্টটি উপকারী হবে ইনশাআল্লাহ।।
[ক]
প্রাথমিক নির্দেশিকা...
_____
👉 রুকইয়াহ শুরুর পুর্বে রুকইয়াহ বিষয়ে ধারনা নিন।। এ সম্পর্কে আক্বীদা ঠিক করে নিন। আবারো মনে করিয়ে দেই, রুকইয়াহ কোন যাদুর চেরাগ না। এইটা একটা চিকিৎসা পদ্ধতি। সুন্নাহ থেকে উৎসারিত। যা দ্বারা আপনার আত্মিক ও শারীরিক সমস্যার শিফা মিলবে ইনশাআল্লাহ।
যদি সেটা না পান, তাহলে বুঝবেন সমস্যা আপনার ইয়াক্বীনে অথবা মেহনতে। রুকইয়াতে কাজ হচ্ছে না— এমন বিশ্বাস রাখা দূরের কথা চিন্তাতেও আনবেন না, সবকিছু ঠিক থাকলে ফায়দা হবেই।
👉 ওযু - গোসল, সালাত, পর্দাসহ সকল ফরজ হুকুম আহকাম জেনে নিবেন। আর সুন্নাহ পালনে সিরিয়াস ও যত্নবান হবেন। এছাড়া হায়েজ - নিফাস, সাদা স্রাবসহ সকল বিষয়ে মাস'আলা-মাসায়েল জেনে নিন।
👉 রুকইয়াহ শুরুর আগে ফরজ গোসল সম্পর্কে ভালোভাবে জেনে নিন। অনেকেই এই ব্যাপারে জানেন না বা গুরুত্ব দেন না। কিন্তু এইটা খুবই গুরুত্বপূর্ণ। যদি আগে না করে থাকেন তাহলে আজই করে নিন। সাথে দুই রাকাত সালাত আদায় করে তওবা করে নিন।।
👉 যারা গ্রুপে পোস্ট দিয়েছেন এখনো পোস্ট এপ্রুভ হয়নি। তারা ধৈর্য ধরে অপেক্ষা করুন। আর পোস্ট এপ্রুভ না হওয়া পর্যন্ত বদনজরের রুকইয়াহ করুন। সিহর বা জ্বিন সংক্রান্ত সমস্যা থাকলেও সম্ভব হলে আগে বদনজরের রুকইয়াহ করুন। এতে অন্যান্য রুকইয়াহ ভালো ফায়দা দিবে ইনশাআল্লাহ। বদনজরের রুকইয়াহ ঠিকঠাকমত করতে পারলে আল্লাহর রহমতে ৫০ থেকে ৮০/৯০% সমস্যা চলে যায়। তাই আগে বদনজরের রুকইয়াহ করুন। আর আপডেটগুলা নোট করুন।
[খ]
কমন রুকইয়াহ....
___
এক. ⁦পিরিয়ড বা মেয়েলী সমস্যায় ডিটক্স করুন। ফায়দা পাবেন ইনশাআল্লাহ। সাথে বিশেষজ্ঞ ডাক্তারও দেখিয়ে নিবেন। পরিষ্কার -পরিচ্ছন্নতা আর খাবার-দাবারের প্রতি যত্নশীল হবেন। আর হ্যা এই সময়টার আপডেট অবশ্যই নোট করবেন। আর পরবর্তীতে সাজেশন নেয়ার জন্য এইগুলো যোগ করুন।
দুই. সিহরের রুকইয়াহর ক্ষেত্রে চেষ্টা করুন পুরো পরিবারের উপর রুকইয়াহ করার। পরিবার রাজি না থাকলে পানি বা খাবারে রুকইয়াহর আয়াত পড়ে দম করে খাওয়াবেন।
তিন. বাচ্চাদের ক্ষেত্রে ভারি রুকইয়াহ না করাই উত্তম।
বাচ্চাদের জন্য সুরা ফাতিহা, তিন কুল এবং আয়াতে শিফাই যথেষ্ট হবে ইনশাআল্লাহ। আর মাসনুন আমলের প্রতি গুরুত্ব দিবেন।
চার. চেষ্টা করুন হাতের কাছে রুকইয়াহ ওয়াটার, তেল, মধু এইসব রাখতে। যেন প্রয়োজনের সময় ব্যবহার করতে পারেন।
এছাড়া রুকইয়াহ ইফেক্ট সামলানোর জন্য পানি রেডি রাখা। এক্ষেত্রে সুরাতুল ফাতিহা সাতবার, আয়াতে শিফা ৩/৭ বার, তিন কুল ৩/৭ বার, দরুদ শরীফ ৩/৭ বার পড়ে দম করুন। সাথে খেজুরও রাখতে পারেন। ভালো ফায়দা দিবে ইনশাআল্লাহ।
পাঁচ. ব্যথা, ঠান্ডা/এলার্জি, বদনজর এইগুলোর আপনার প্রাথমিক চিকিৎসা হিসেবে রুকইয়াহ কিন্তু খুবই ফায়দাময় আলহামদুলিল্লাহ।
এই ধরনের সমস্যায় তাৎক্ষণিক রুকইয়াহ করতে পারেন। ফল পাবেন ইনশাআল্লাহ।
ছয়. 'রাতে জ্বিনের সমস্যা'য় যারা ভুগছেন তারা শুধু ঘুমানোর সময় না, সবসময় অযু অবস্থায় থাকার চেষ্টা করুন।। বেশি থেকে বেশি ইস্তিগফার করুন। দরুদ শরীফ পাঠ করুন। সাথে আট সুরা ও সুরা যিনার রুকইয়াহ শুনুন।। আর এই সমস্যার জন্য ডিটক্সও করে ফেলতে পারেন। ফায়দা হবে ইনশাআল্লাহ।
সাত. ডিটক্সের ক্ষেত্রে সাতদিনই সুরা বাকারার তিলাওয়াত করার চেষ্টা করুন। তা সম্ভব না হলে অন্তত প্রতিদিন ২/৩ দিনে সম্পূর্ণ বাকারা তিলাওয়াত করুন। আর সাথে প্রতিদিন তিলাওয়াতের অডিও শুনুন।
আট. সাধারণ অসুস্থতার ক্ষেত্রে সকালে আয়াতে শিফা ও সুরা ফাতিহা ৭ বার পড়ে পানি খাবেন।।
সাথে ডাক্তারের পরামর্শ নিবেন। আর চেষ্টা করুন কুর'আন, হাদীসে উল্লেখিত চিকিৎসা পদ্ধতি অনুসরণ এবং উপাদান ব্যবহার করতে। যেমন: মধু-কালোজিরা, যাইতুনের তেল, খেজুর ইত্যাদি।।
নয়. সম্ভব হলে প্রতিদিন সকালে খালি পেটে ৭ টা আজওয়া খেজুর খান। আজওয়া না হলেও অন্য যে কোন খেজুর খেতে পারেন। যাদের ঘুমের সমস্যা আছে তারা ঘুমানোর আগে মধুর শরবত বা দুধের সাথে মধু মিশিয়ে খেতে পারেন, উপকার পাবেন ইনশাআল্লাহ।
দশ. পড়াশুনা ও ইবাদাতে অমনোযোগীতার জন্য অন্ততপক্ষে ২ সপ্তাহ বদনজরের রুকইয়াহ করুন।
ইনশাআল্লাহ ফায়দা পাবেন।
এক্ষেত্রে (১৬ মিনিটের অই রুকইয়াহ) শুনতে পারেন। আর প্রত্যেক নামাজ শেষে তাসবীহে ফাতেমি পড়ুন। এরপর -
لاَ إِلَهَ إِلاَّ اللّٰهُ وَحْدَهُ لاَ شَرِيْكَ لَهُ، لَهُ الْمُلْكُ وَلَهُ الْحَمْدُ، وَهُوَ عَلَى كُلِّ شَيْءٍ قَدِيْرٌ
উচ্চারণ: লা ইলা-হা ইল্লাল্লা-হু ওয়াহ্‌দাহু লা শারীকা লাহু, লাহুল মুলকু, ওয়া লাহুল হামদু, ওয়া হুয়া ‘আলা কুল্লি শাই’ইন ক্বাদীর।
অর্থ: একমাত্র আল্লাহ ছাড়া কোনো হক্ব ইলাহ নেই, তাঁর কোনো শরীক নেই, রাজত্ব তাঁরই, সমস্ত প্রশংসাও তাঁর, আর তিনি সকল কিছুর উপর ক্ষমতাবান।
এগারো. ব্যথার জন্য ব্যথার রুকইয়ার আয়াত পড়ে অলিভওয়েল/যাইতুনের তেল রেখে দিতে পারেন। যেকোন ধরনের ব্যথায় এইটা খুবই উপকারী আলহামদুলিল্লাহ।।
[গ]
গুরুত্বপূর্ণ কিছু কথা...
🌿 রুকইয়াকে সকল সমস্যার সমাধানের মাধ্যম হিসেবে নিবেন না। সকল সমস্যা ও প্রয়োজন রবকে বলুন। সলাতের মাধ্যমে সাহায্য চান। বেশি বেশি দু'আ করুন। সাথে অল্প হলেও সামর্থ্য অনুযায়ী নিয়মিত দান-সাদাকা করুন।
🌿 নিজের জবানকে যিকরে ব্যস্ত রাখুন। বেশি বেশি করে ইস্তেগফার আর দরুদ শরীফ পাঠ করুন। একটু একটু ফুরসত পেলেই যিকর করতে থাকুন...। জীবনে আমূল পরিবর্তন চলে আসবে।
⁦⁦⁦🌿 সকাল-সন্ধ্যা এবং ঘুমের সময়ের মাসনুন আমলগুলো গুরুত্বের সাথে করুন।। খারাপ কিছুর আশংকা করলে বা কুকুরের ডাক শুনলে শয়তানের থেকে পানাহ চান। তা'আউয পড়ুন। এছাড়া প্রত্যেক ফরজ সালাতের পর পূর্বে বলা "লা-ইলাহা ইল্লাল্লাহু.. দোয়াটা ১০ বার করে পড়ুন।"
🌿 মনে রাখবেন রুকইয়াহ করা মানে শুধু রুকইয়াহ শুনা না। রুকইয়াহর জন্য উত্তম হলো তিলাওয়াত করা। যদি আপনি একান্তই অপারগ তখন অডিও শুনুন। নাহলে তিলাওয়াত করুন। এতে বেশি ফায়দা হবে। আর যারা কুর'আন পড়তে পারেন না, তারা দ্রুত শিখে নিন। পারিনা বলে হাত পা গুটিয়ে বসে থাকবেন না প্লিজ। আর যারা বলেন পড়া শুদ্ধ না, দ্রুত পড়তে পারিনা তাদের বলছি। ভয় বা অজুহাত না দিয়ে চেষ্টা করুন শুদ্ধভাবে তিলাওয়াত করার। আপনার তিলাওয়াত আস্তে আস্তে ঠিক হয়ে যাবে ইনশাআল্লাহ। আপনি যদি নাই ই চেষ্টা করেন তাহলে ঠিক হবে কীভাবে!!
🌿 অনেকের ধারনা নিজে নিজে রুকইয়াহ করলে ফায়দা হবে না। কিংবা কম হবে। অমুকের কাছেই যেতে হবে। এইটা-ওইটা করতে হবে। নাহলে ঠিক হবে না। এইসব ধারনা থেকে বেঁচে থাকুন। যে কেউই রুকইয়াহ করতে পারেন। নিজেই নিজের রুকইয়াহ করুন। এইটাই অধিক উত্তম।।
তবে প্রফেশনালদের একটা ব্যাপার হচ্ছে, তারা এ বিষয়ে অভিজ্ঞ তাই সমস্যা আইডেন্টিফাই করে সে মোতাবেক চিকিৎসা দিতে পারে। আর রুগীর অবস্থা বুঝে প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ নিতে পারে। বাকি কোন বিশেষ ব্যক্তির প্রতি না। আল্লাহ তা'আলার কালামের উপর বিশ্বাস রাখুন।।
Share:

এন্ড্রয়েড অ্যাপ – মাসনুন আমল (নিরাপত্তা এবং অন্যান্য ফজিলতের যিকর)

অনেকদিন ধরেই ব্যক্তিগতভাবে ব্যবহারের জন্য এরকম একটা কিছু তৈরির ফিকির ছিল। সেদিন পরিচিত এক শাইখ বললেন- যত রকম সকাল-সন্ধ্যার হেফাজতের আমল আছে, সব একসাথে একটা অ্যাপের মধ্যে পেলে সুবিধা হত, এছাড়া যারা রুকইয়াহ করেন, তারা তো চান হিফাজতের জন্য অতিরিক্ত কিছু আমল করতে, একসাথে পেলে সবারই সুবিধা হবে।
ওই সময়েই চট্টগ্রামের এক ভাইয়ের সাথে রুকইয়াহ বিষয়ে অ্যাপ বানানো নিয়ে কথা বলছিলাম, উনার সাথে শেয়ার করলাম। উনি একটা অ্যাপ দেখালেন, বেসিক হিফাজতের আমলগুলো দিয়ে বানানো, ইতিমধ্যে উনি এটা ব্যবহার করছেন। উনার সাথেই কাজ শুরু করলাম, উনার এক বন্ধু ‘ইউজার ইন্টারফেস’ ডিজাইন করে দিল। আমি হিসনুল মুসলিম, যাদুল মা’আদ, আস-সারিমুল বাত্তার ইত্যাদি থেকে ডেটা সংগ্রহ করলাম। এরপর উনি পরীক্ষা ইত্যাদি ব্যস্ততার মাঝেও অনেক পরিশ্রম করে এই অবস্থায় আনলেন। আল্লাহ সংশ্লিষ্ট সবাইকে দুনিয়া এবং আখিরাতের উত্তম প্রতিদান দিক।
এবার ওয়েবভিউ দিয়ে করা হয়েছে, আপনারা আপাতত ব্যবহার করেন, কোন সমস্যা পেলে জানাইয়েন। ঠিক করার চেষ্টা করব। আর আল্লাহ চায়তো কয়েকমাস পর পুরোটা ঢেলে সাজাবো, তখন ডে-নাইট থিম, ফন্ট সাইজ পরিবর্তন, ফেভারিট দোয়া মার্ক করার অপশন– ইত্যাদি সহ ভালো করে প্রোগ্রাম করা হবে।



অ্যাপ বিবরণ:
মাসনুন আমল – অ্যাপটিতে আমরা প্রথমে সকাল-সন্ধ্যা এবং ঘুমের আগের ওই সব আমলগুলো একত্র করার চেষ্টা করেছিলাম, যা রাসূল সল্লাল্লহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম অথবা সালাফে সালেহিন থেকে ব্যক্তিগত নিরাপত্তার জন্য নির্দেশিত। পরবর্তিতে ব্যবহারকারীদের সুবিধার কথা বিবেচনা করে অন্যান্য সময়ের এবং অন্যান্য ফজিলতের বেশ কিছু দোয়া সংযুক্ত করে দেয়া হয়েছে। এর মাঝে এমন বেশ কিছু দোয়াও রয়েছে, যেগুলো শুধু সকাল-সন্ধ্যা নয়, বরং অন্যান্য সময়ের জন্যও হাদিসে নির্দেশিত হয়েছে।
অধিকাংশ কোরআনের আয়াতগুলোর ক্ষেত্রে অডিও যুক্ত করে দেয়া হয়েছে। যেন বিশেষ সময়ে যখন বোনরা কোরআন থেকে পড়তে পারবেন না, তখন সেগুলো মনোযোগ দিয়ে শুনতে পারেন।
অ্যাপটি মূলত যিকরের সুবিধার জন্য বিল্ড করা হয়েছে, যাতে পাঠযোগ্য অনেক দোয়া একসাথে পাওয়া যায়। আর এজন্যই আমরা কোন দোয়ার ফজিলত অথবা দোয়া সংক্রান্ত হাদিস উল্লেখ করিনি। শুধু দোয়া কিংবা আয়াতের সাথে কিভাবে/কতবার পড়তে হবে সেটা বলা হয়েছে। আগ্রহী ব্যবহারকারীরা এই দুয়াগুলোর ফজিলত এবং এসংক্রান্ত অন্যান্য তথ্য জানতে “হিসনুল মুসলিম, হিসনে হাসিন, আল-কালিমুত ত্বয়্যিব, যাদুল মা’আদ এবং আমালুল ইয়াওমি ওয়া লাইলাহ” গ্রন্থসমূহ দেখতে পারেন।
আরেকটি বিষয় হল, কেউ চাইলে এই দোয়াগুলো কোন সমস্যা আক্রান্ত ব্যক্তির রুকইয়াহ শারইয়্যাহ (শরিয়ত নির্দেশিত পদ্ধতিতে ঝাড়ফুঁক) এর মাঝেও ব্যবহার করতে পারেন।
.
(আপডেট: অডিও ঠিক করা হয়েছে, আর পেইজের শেষে নেক্সট বাটন যুক্ত করা হয়েছে)
.
নিজে ব্যবহার করুন, রিভিউ দিন, শেয়ার করুন।
** গুগল প্লে স্টোর লিংক- https://play.google.com/store/apps/details?id=org.ruqyahbd.masnun
** শর্ট লিংক- http://bit.ly/masnun-app
Share:

নিজেরই ঠিক নাই...

১.
একটা লোক ভালো অথবা খারাপ = সিম্পল
২.
আরেকজন ফেসবুকে অনেক নসিহত করে, মানুষের ভুলত্রুটি ধরিয়ে দেয়, অথচ নিজের আমল - মুয়ামালাতেরই ঠিক নাই = গর্জিয়াস
৩.
এই হযরত মানুষকে বলেন- "আরে ভাই মানুষ অন্যকে উপদেশ দেয়, ফেসবুকে ইসলাহী বয়ান দিতে দিতে টাইমলাইনকে খানকা বানিয়ে ফেলে অথচ তাদের নিজেদেরই ঠিক নাই" আপনি তার বয়ানে বিমোহিত এবং শিহরিত হলেন "আহ! মানুষ কত খারাপ"
কিন্তু কদিনপর টের পাইলেন "নিজের ঠিক নাই" বয়ান করা এই হযরতেরও নিজেরই ঠিক নাই = সিম্পলের ভিত্রে গর্জিয়াস...
.
আল্লাহ আমাদেরকে নিফাক থেকে হিফাজত করুক
Share:

বই নিয়ে কিছু কথা - ১

[ক]
আর মাত্র ক'টা দিন, আমার মনে হয়েছে কিছু গুরুত্বপূর্ন বিষয় নিয়ে আপনাদের সাথে আলোচনা করা উচিত। লেকচার না! এই ধরেন চা-বিস্কিট খেতে খেতে কিছু গল্পগুজব করার মত, আরকি...
তবে আমি সময় বেশি পাইনা তো.. তাই কয়েকবারে অল্প অল্প করে কিছু কথা লিখব ইনশাআল্লাহ।
[খ]
বইটা কাদের জন্য?
- রুকইয়াহ বিষয়ে বিগেনার টু ইন্টারমিডিয়েট, মোটামুটি সবার জন্যই!
[গ]
কেউ যদি জিজ্ঞেস করেই বসে, ভাই "রুকইয়াহ" বইটার বিশেষত্ব কি? অথবা এটায় এমন কি আছে যা অন্য কোন বইয়ের মধ্যে নাই।
- আমি এখানে প্রয়োজনীয় সব বিষয়ের খোলাসা জমা করতে চেষ্টা করেছি। তবে অন্তত দুই - তিনটা বিষয়ে এখানে এমন কন্টেন্ট আছে যা অন্য কোন বইয়ে আমার চোখে পড়েনি।
১. রুকইয়াহ বিষয়ে মৌলিক আলোচনা..
২. বদনজর বিষয়ে বিস্তারিত..
৩. ওয়াসওয়াসা রোগ - নিয়ে মোটামুটি আলোচনা!
তবে সত্যি কথা হচ্ছে, ওয়াসওয়াসা  নিয়ে আরও অনেক অনেক কাজ বাকি আছে। আমি করতে পারলে ভালো লাগতো...
[ঘ]
বই নিয়ে জমে থাকা প্রশ্ন-
- আমার "xyz" সমস্যা, এই বইয়ে কি সমাধান থাকবে?
- ফেসবুকের সব লেখা কি থাকবে?
- ফেসবুকের লেখাগুলোই থাকবে?
- এত দেরি হচ্ছে কেন?
- কবে আসছে?
এগুলোর উত্তর আগামীতে দিব ইনশাআল্লাহ...
আপনার কোন প্রশ্ন আছে?
_______
বই -রুকইয়াহ
লেখক - আবদুল্লাহ আল মাহমুদ
সম্পাদনা- Ali Hasan Osama
প্রকাশক-  Maktabatul Aslaf
Share:

বই নিয়ে কিছু কথা - ২

[ক]
ঘটনা-১ঃ
...জিনটা বললঃ  I'll kill you!
আমি বললামঃ চিল্লাইস না! আস্তে কথা বল!
ঘটনা-২ঃ
জিন বললঃ তোকে রাজশাহী থেকে আসতে মানা করেছিলাম, তাও তুই এসেছিস!
বললামঃ ধুর! তুই কোন ঘোড়া ডিমরে? তোর কথা আমি শুনব, ফাইজলামি?
ঘটনা-৩ঃ
বললাম- তুই হয়তো চিরদিনের জন্য চলে যাবি, নইলে এখানেই মরবি।
জিনঃ না না, আমি এরে ছাড়া বাচবো না। আমাকে তাড়াইস না!
- উহু, এর সাথে থাকা যাবে না। আমি যা বললাম সেটাই শুনবি। নইলে দেখ কেমন মজা লাগে...
[বিসমিল্লাহির রহমানির রহিম..... ফালাম তাক্বতুলূহুম ওয়ালা কিন্নাল্লাহা ক্বতালাহুম...]
- থাম থাম থাম, আমি চলে যাব, ১মাস পর আসবো।
- উহু, হবে না
[আবার তিলাওয়াত শুরু]
- ২মাস, ৫মাস, ৬মাস, ১০মাস, ১বছর! এক বছর পরপর আসব, এর মধ্যে কোন বিরক্ত করব না।
[তিলাওয়াত চলছে]
- আ আ (চিৎকার) থাম থাম! প্লিইইজ থাম। ৫বছর।
- উহু! একদম যাবি, নইলে মরবি।
- আচ্ছা, চিরদিনের জন্য যাচ্ছি। আর কখনো আসবো না।
- ওয়াদা কর।
- হ্যা, ওয়াদা করলাম।
[খ]
একদম ছোটবেলায় দেখেছিলাম, এক সহপাঠিকে জ্বিনে ধরেছিল। কোন দোষ ছিল না তার। শুধুমাত্র দুপুর বেলা ছাদে গিয়েছিল, ব্যাস এতটুকুই!
কয়েক সপ্তাহ কি যে কষ্ট করল তার পরিবার। পরে ছেলেটা আর পড়তেই পারলো না।
বিষয়টা মনে পড়লে খুব খারাপ লাগতো, এখনও লাগে।
দু-তিন বছর আগে একটা গল্প শুনেছিলাম, শেষটা এরকম- একটা মেয়ে পুকুরে পা ধুতে নেমেছিল, আর জিনে ধরেছে। পরে মেয়েটা পুকুরের পাড়ে বসে থাকতো, মেয়েটার পায়ে শেকল বাধা ছিল। কাউকে চিনত না। কয়েকদিন পর চিরদিনের জন্য মেয়েটা পুকুরের মধ্যে চলে যায়।
সত্য মিথ্যা যাইহোক, এই গল্প শোনার পর আমি খুব কষ্ট পেয়েছিলাম। মনে হচ্ছিল মানুষ কি এতটাই অসহায়, শয়তানরা যা খুশি করবে। কিছুই করার থাকবে না?
আমার খুব ঘনিষ্ঠ এক বন্ধুর ভাতিজিকে এক শয়তান লোক জাদু করে বশ করে বিয়ে করেছিল। এটা শোনার পর খুব কষ্ট পেয়েছিলাম। প্রচণ্ড ঘৃণা জন্ম নিয়েছিল জাদু আর জাদুকর চর্চাকারী কবিরাজদের প্রতি।
এসব কি? ছিহ!
বারবার মনে হচ্ছিল, এসব শয়তানি শক্তিগুলোর সামনে আমাদের কি কিছুই করার নাই?
[গ]
শয়তান জিনের ওপর রুকইয়াহ করলে যখন অলমোস্ট পায়ে পড়ে মাফ চায়, সত্যি কথা জানেন? পেছনের ঘটনাগুলো মনে পড়লে, মাফ করতে মন চায় না। মনে হয় মেরে ফেলি।
আর বলতে ইচ্ছা হয়, তোদের সবচেয়ে বড় শয়তানটাকে ডেকে নিয়ে আয়, সাথে তার অনুসারী সবগুলোকে।
আমি দেখতে চাই, আমার রবের কালামের সামনে তারা কিভাবে দাঁড়ায়!
থাক, আজ আর কথা না বাড়াই। এরকম অনেকগুলো সুখ-দুখের ঘটনা ছিল রুকইয়া নিয়ে কাজ করার পেছনে মোটিভেশন। প্রকাশিতব্য বইটি ফলো করলে, আশা করি আপনিও শয়তানদের দৌড়ের ওপর রাখতে পারবেন।
তাহলে আপনি কি প্রস্তুত, অন্ধকার হটিয়ে আলো ফিরিয়ে আনার অভিযানে আমাদের সঙ্গী হতে?
শিঘ্রই  আসছে ইনশাআল্লাহ...
_______
বই - রুকইয়াহ
লেখক - আবদুল্লাহ আল মাহমুদ
সম্পাদনা- Ali Hasan Osama
প্রকাশক-  Maktabatul Aslaf
Share:

বই নিয়ে কিছু কথা - ৩

[ক]
"তিনি তোমাকে পেয়েছিলেন পথহারা, অতঃপর পথপ্রদর্শন করেছেন"।
.
উপরের এবং নিচের কথাগুলো বইয়ের ভূমিকাতে লিখেছিলাম, পরে অহেতুক দীর্ঘ হয়ে যাচ্ছে বুঝতে পারে বাদ দিয়েছি।
আর ঠিক করেছি, গল্প আলাপ বইয়ে সংক্ষেপে দুইচার লাইনে শেষ করে দিয়ে ফেবুতে দিলখুলে বলব।
চলুন শুরু করা যাক...
[খ]
শুরুর গল্প...
রুকইয়াহ শারইয়্যাহ নিয়ে আমভাবে কাজ শুরু করার দুই বছর পূর্ণ হল। মানে কদিন পরেই হবে!
এত অল্প সময়ে কিভাবে এতকিছু হয়ে গেল তা শুধু আমার রব আল্লাহই জানেন।
শুরুটা হয়েছিল ২০১৬ সালের ঈদুল আযহার ছুটিতে। বড় মামার বাড়িতে গিয়ে ভাগিনার কাছে কিছু গল্প পেয়েছিলাম- যাদু, যাদুকর বিষয়ে। হঠাৎ মনেহল এই বিষয়ে পড়াশুনা করা দরকার। কিন্তু কোন পথ খুজে পাচ্ছিলাম না। রাতে বাড়ি ফিরে ফেসবুকে পোস্ট করলাম, "যাদু বিষয়ে বিজ্ঞ আলেমদের কোন লেখা, লেকচার কারও জানা থাকলে সাজেস্ট করেন প্লীজ"।
কিছু ই-বুক আর লেকচার পেলাম। কিন্তু পরে সেগুলো আর দেখা হয় নি। এক ভাই বললেন, তাফসিরে ইবনে কাসীর থেকে সুরা বাকারার ১০২ নং আয়াতের তাফসির পড়; পড়লাম। খুব ভাল লেগেছিল। ছুটি শেষ হবার আগেই ৫-৬ টি তাফসীর গ্রন্থ খুজে এই আয়াতের তাফসির পড়ে ফেললাম। প্রায় সব মুফাসসিরই এই আয়ত নিয়ে দীর্ঘ ও চমৎকার  আলোচনা করেছেন। কিন্তু আমার তৃপ্তি মিলল না, আমি আরও কিছু খুজছিলাম!
(পরে মাদ্রাসার তাফসির বিভাগে গিয়ে আরও কয়েকটা থেকে পড়েছিলাম)
[গ]
এরই মধ্যে ছুটি শেষ হয়ে গেল। আমি এবং আবু উবাইদা ভাই চিটাগাং যাচ্ছিলাম। দুজনে বাসের সামনে সীটে বসে গল্প করছিলাম।
আমার পরিচিত ভাইব্রাদারদের মধ্যে Abu Obaida ভাই একজন বহুমাত্রিক প্রতিভার অধিকারী মানুষ! (আল্লাহ উনার ঈমান আমলে বরকত দিক) সব আজব আজব বিষয়ের জ্ঞান; এপিক, ইউনিক এবং বিরল সব কন্টেন্ট এর কালেকশন থাকতো উনার কাছে।
যাহোক, বাড়িতে কেমন দিনকাল কাটলো তা নিয়ে কথা বলছিলাম। কথা প্রসঙ্গে বললাম, "এবার বাড়িতে গিয়ে যাদু টপিকে মুতালায়া করেছি। আমাদের ভালো কোন আলেমের এই বিষয়ে বয়ানের কথা আপনার জানা আছে?"
উনি বললেন, "যাদু-টাদু নিয়ে তো কতজনই বলে। এরচে' ভয়াবহ ব্যাপার কি জানো?
- কি?
- বদনজর। আচ্ছা ডেটা ব্যালেন্স থাকলে তুমি "মুফতি জুনাইদ মুম্বাই" লিখে সার্চ করো।" করলাম।
আসলো "মুফতি জুনাইদ, মুম্বাই, রুকইয়াহ"। muftisays ফোরামের একটা থ্রেড, সেখানে অনেকজন কথা বলেছে।
- জিজ্ঞেস করলাম, "এটা"
- "হ্যা এটাই"
- আচ্ছা ভাই, রুকইয়াহ কি?
- রুকইয়াহ তো দারুন জিনিস....!
অনেকগুলা গল্প শুনলাম রুকইয়া বিষয়ের। ওবাইদা ভাই এগুলো মুফতি সাহেবের বয়ানের মধ্যে পেয়েছিলেন। বেশ ইন্টারেস্টিং মনে হল। যে কয়টা লেকচার পেলাম মাদ্রাসায় গিয়ে শুনে ফেলব মর্মে পাক্কা ইরাদা করলাম।
[ঘ]
প্রথমদিকে নিজের এবং উম্মে আব্দুল্লাহ ফুফুর উপর এক্সপেরিমেন্ট করে অকল্পনীয় ফলাফল পেলাম। যদিও তখন তেমন কিছুই বুঝতাম না। শুধু অডিও আর গোসল সম্পর্কে জেনেছিলাম।
তবে তিনটি শব্দ মনে গেঁথে নিয়েছিলাম- "নিয়ত, ইয়াক্বিন, মেহনত"। (বইয়ের শুরুর দিকে এগুলোর ব্যাখ্যা আছে)
ফুফুর সাথে পরামর্শ করলাম, এবিষয়ে তো বাংলা ভাষায় কন্টেন্ট নাই তেমন, অনুবাদ করে পোস্ট করি? পারলে কর।
কদিনের মধ্যে সিদ্ধান্ত নিলাম, হ্যা! অনুবাদ করব। তবে হুবহু না। উনায় লেকচার কয়টা একত্র করে পয়েন্ট পয়েন্ট হিসেবে...।
"বদনজর এবং রুকইয়াহ-১" নামে প্রথম লেখাটি পোস্ট করেছিলাম অক্টোবরের ১০তারিখে, ২০১৬সন।
..
ক্রমশঃ (ইনশাআল্লাহ)
_______
বই - রুকইয়াহ
লেখক - আবদুল্লাহ আল মাহমুদ
সম্পাদনা- Ali Hasan Osama এবং  Abdullah Al Masud
প্রকাশক-  Maktabatul Aslaf
Share: